গ্রাফিক্স ডিজাইন করে ঘরে বসে টাকা উপার্জন

গ্রাফিক্স ডিজাইন করে ঘরে বসে টাকা উপার্জন

উন্নত বিশ্বের মাথাপিছু আয়ের ৪৫% আসে আউটসোর্সিং করে। আউটসোর্সিং এর একটি জনপ্রিয় সাইট হলো গ্রাফিক্স ডিজাইন। বর্তমানে গ্রাফিক্স ডিজাইন করে ঘরে বসে লক্ষ কোটি টাকা পর্যন্ত আয় করছে। আজকে আমরা আপনাদের জানানোর চেষ্টা করবো কিভাবে গ্রাফিক্স ডিজাইন করে আপনিও সাবলম্বি হতে পারেন। তার আগে আপনাকে জানতে হবে গ্রাফিক্স ডিজাইনের খুটিনাটি।

• গ্রাফিক্স ডিজাইন কি?

গ্রাফিক্স ডিজাইন মূলত কোন একটি নির্দিষ্ট আকৃতিকে কম্পিউটারের মাধ্যমে রূপ দেওয়া বা অধিকতর আকর্ষণীয় করে তোলা। অন্যভাবে বলা যায় বিজ্ঞাপন, ব্যানার, টি শার্ট ডিজাইন, ফ্যাশন ডিজাইন প্রভৃতি কাজ কম্পিউটারের মাধ্যমে সঠিক এবং নির্ভুলভাবে মানুষের সামনে তুলে ধরা।

• গ্রাফিক্স ডিজাইনে কি কি জানতে হবে?

প্রথমত আপনার নির্দিষ্ট কিছু বিষয় সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। গ্রাফিক ডিজাইন শেখার প্রাথমিক লক্ষ্য হলো যেকোনো কিছু আঁকতে (প্রাণীর ছবি, কার্টুন, গাছপালা, বইখাতা) সক্ষম হতে হবে। পরবর্তীতে সেই আকৃতিকে কম্পিউটারের সাহায্যে রুপ দেওয়া। এগুলো করার জন্য কলম, পেন্সিল, রং, তুলি এবং সবচেয়ে মূল্যবান বিষয় কিছু কম্পিউটার সফটওয়্যার প্রয়োজন হবে। এই সফটওয়্যার আপনাকে কিনতে হবে ব্যবহার করার জন্য।

• গ্রাফিক্স ডিজাইন কোথায় শিখবো?

অনেক সরকারি এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠান আছে যারা গ্রাফিক্স ডিজাইন কোর্স করান। যেমন, বাংলাদেশের বিভিন্ন আইটি সেক্টরগুলোতে গ্রাফিক্স ডিজাইনের উপর বিশেষ ক্লাস নিয়ে থাকেন। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন – Click Here

• গ্রাফিক্স ডিজাইনে কোন কাজ করে আয় করতে পারবো?

গ্রাফিক্স ডিজাইন করে ঘরে বসে টাকা উপার্জন
Bloggerbd

অনেক ধরনের কাজ করেই আয় করতে পারবো। তবে, তাদের মধ্যে কিছু সংখ্যক জনপ্রিয় কাজ হলো –

• লোগো ডিজাইন – একটি লোগো যেকোনো কোম্পানি বা প্রোডাক্টের পরিচয় বহন করে। একটি লোগোর সাহায্যে যেকোনো একটি প্রতিষ্ঠানকে খুব সহজেই খুঁজে পাওয়া যায়। এজন্য লোগোর গুরুত্ব সম্পর্কে মনে হয় না আর বিস্তারিত আলোচনা করার দরকার হবে। কোম্পানির চাহিদা অনুযায়ী লোগো তৈরি করে আপনি প্রতিটি লোগোর পরিবর্তে ৩০ ডলার থেকে ৫০০০ ডলার পর্যন্ত পেতে পারেন। এজন্য আপনাকে একজন দক্ষ লোগো ডিজাইনার হতে হবে এবং আপনার কজের ওপর যথেষ্ট যত্নশীল ও দায়িত্ববান হতে হবে। তবে মনে রাখতে হবে এটা একটি দীর্ঘ স্থায়ী প্রক্রিয়া। আপনি আজকে কাজ শুরু করে আজই টাকা আয় করতে পারবেন না। এজন্য আপনাকে আগে সবার কাছে পরিচিত হতে হবে এবং আপনার কাজের দক্ষতা সম্পর্কে বিজ্ঞাপন দিতে হবে।

• ইউটিউব মার্কেটিং – এটি একটি অন্যতম সহজ উপায় টাকা আয় করার জন্য। বিভিন্ন ধরনের ডিজাইন (ছবি আকা, লোগো তৈরি করা) করে, ভিডিও তৈরি করার মাধ্যমে ইউটিউবে আপলোড করে টাকা আয় করা সম্ভব। এর জন্য আপনার একটি মনিটাইজেশন অন করা ইউটিউব চ্যানেল থাকতে হবে। এছাড়াও ভিডিও এডিটিংয়ের উপর দক্ষতা অর্জন করতে হবে। ভিডিও এডিট করার জন্য কিছু সফটওয়্যার প্রয়োজন হবে। যার মধ্যে কিছু আপনি ফ্রিতে পেয়ে যাবেন এবং কিছু সফটওয়্যার আপনাকে কিনতে হবে। ইউটিউব একটি আনলিমিটেড এবং দীর্ঘ স্থায়ী টাকা ইনকাম এর জন্য জনপ্রিয় মাধ্যম।

• ফেসবুক মার্কেটিং – বর্তমানে আমরা এমন কেউ নেই যার একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নেই। আপনি ফেসবুকে নিউজ ফিডসে নিজের সময় নষ্ট না করে ঘরে বসেই ফেসবুক মার্কেটিং করে আয় করতে পারেন। ফেসবুকের জনপ্রিয়তার জন্য এই কাজটি অত্যন্ত সহজ এবং অল্প সময় কাজ করেই ভালো অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। যেমন, পোস্ট লেখার মাধ্যমে, বিজ্ঞাপন তৈরি করে, ভিডিও এডিট করে।

• এডিট গ্রাফিক্স – অলরেডি তৈরি করা আছে এমন যেকোন একটি টেম্পলেট নতুনভাবে তৈরি করা বা আকৃতি প্রদান করার নামই হলো এডিট গ্রাফিক্স। আপনি যেকোন ধরনের গ্রাফিক্স এডিটিং করেও মাসে ভালো পরিমানে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। কিন্তু প্রথমত এই বিষয়ে আপনার যথেষ্ট দক্ষতা থাকতে হবে৷ কেননা বিভিন্ন কোম্পানি থেকে আপনি ইচ্ছা করলেই টেম্পলেটগুলো কিনতে পারবেন এবং সেগুলো বিভিন্ন সফটওয়্যার দ্বারা ডিজাইনগুলো কে এডিট করে আপনি নির্দিষ্ট পরিমাণে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং শিখার মাধ্যমে মার্কেটপ্লেসগুলো থেকে এখন যে কেউ আয় করতে সক্ষম। এজন্য আপনাকে অবশ্যই এই বিষয়ে ভালো জ্ঞান অর্জন করে দক্ষ ফ্রিল্যান্সার হিসাবে নিজেকে পরিচিতি করাতে হবে।

আরও পড়ুন :

মোবাইল গেইম খেলে মাসে ৩০০০০ টাকা আয়

Android Apps ব্যবহার করে মাসে ৫০০০০ টাকা আয়

• বিজ্ঞাপন ডিজাইন – বিভিন্ন কোম্পানি তাদেঃর প্রডাক্ট সবার কাছে পরিচিতি লাভের জন্য এবং কোম্পানির প্রডাক্টের গুন-গুন সম্পর্কে সাধারণ মানুষের মাঝে জানানোর জন্য বিজ্ঞাপন তৈরি করে থাকেন। বিজ্ঞাপনের মধ্যে ভিডিও, ছবি, ব্যানার বা এনিমেশন গ্রাফিক্স ব্যবহার করা হয়। তৈরিকৃত এনিমেশন বা ব্যানার অনলাইন ভিত্তিক বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসগুলোতে প্রচারের জন্য দেওয়া হয়। আপনি যদি একজন দক্ষ বিজ্ঞাপন বা ব্যানার ডিজাইনার হিসাবে নিজের কাজের দক্ষতা দেখাতে পারেন তাহলে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস থেকে ভালো পরিমাণে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। কারণ বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তির বদৌলতে আমরা দিনের বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অনলাইন প্লাটফর্মগুলোতে নিজেরা সময় কাটায়।

• ইনফো-গ্রাফিক ডিজাইন – ইনফো-গ্রাফিক্স ডিজাইন করে অনলাইন থেকে ইনকাম করা অত্যন্ত সহজ একটি প্রক্রিয়া। কারণ এই কাজে অল্প সময়ের মধ্যে আপনি লোটা অংকের টাকা আয় করতে পারবেন। গ্রাফিক্স ডিজাইনাররা সাধারণত ইনফো-গ্রাফিক ডিজাইন করে প্রতি মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করে। বিভিন্ন অনলাইন ভিত্তিক মার্কেটপ্লেসগুলোতে যেকোন ব্যক্তিই ইনফো-গ্রাফিক ডিজাইন করতে পারবেন। এজন্য সবার আগে আপনাকে এই বিষয়ে ভালো জ্ঞান অর্জন করতে হবে।

[আমাদের শেষ কথাঃ বেকারত্ব সমস্যা দূর করার জন্য ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে দক্ষ হিসাবে কাজ করে নিজে সাবলম্বী হওয়া যায়। এতে দেশ ও জাতীয় জীবনে আপনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারবেন। তাই আসুন আমরা সবাই মিলে বেকারত্বকে না বলি এবং ফ্রিল্যান্সার হিসাবে দেশ গড়ি। ]

admin
Online Income

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *